আগুনে পুড়ল নিউ রাজধানী সুপার মার্কেট

প্রকাশিত: ২:১৪ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ২০, ২০১৯

আগুনে পুড়ল নিউ রাজধানী সুপার মার্কেট

নিউজ ডেস্ক: ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক দিলীপ কুমার ঘোষ জানান, বুধবার বিকাল সোয়া ৫টার দিকে ওই দোতলা টিনশেড মার্কেটে আগুন লাগার খবর পান তারা।

দেড় ঘণ্টার চেষ্টায় ফায়ার সার্ভিসের ২৫টি ইউনিট সন্ধ্যা পৌনে ৭টার দিকে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে জানিয়ে তিনি বলেন, “মার্কেটের দোতলায় আগুনের সূত্রপাত হয়। সেখানে ছয়-সাতটি দোকান পুড়ে গেছে বলে প্রাথমিকভাবে আমরা দেখেছি। এখন ডাম্পিংয়ের কাজ চলছে।”

১৯৯৫ সালে চালু হওয়া রাজধানী সুপার মার্কেটের পাশেই তুলনামূলক ছোট জায়গা নিয়ে পরে গড়ে ওঠে নিউ রাজধানী সুপার মার্কেট।

দোতলা মার্কেটের উপরে ৭৭টি এবং নিচে ৭৭টি দোকান রয়েছে বলে মার্কেটের ব্যবসায়ীদের ভাষ্য।

তবে কীভাবে সেখানে আগুনের সূত্রপাত হল, তা এখনও জানা যায়নি। তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতের কোনো খবরও পাওয়া যায়নি।

ওয়ারী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মোস্তাফিজুর রহমান বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে বলেন, ওই এলাকার মার্কেটগুলো বন্ধ থাকে রোববার। আগুন যখন লাগে তখন সব দোকানই খোলা ছিল।

“বিকালে মার্কেটের পূর্ব দিক থেকে ধোঁয়া উড়তে দেখা যায়। এরপর আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে এবং ব্যবসায়ী ও অন্যরা বেরিয়ে আসেন। বহু দূর থেকেও এলাকায় আগুন ও ধোঁয়া দেখা যায়।”

‘আল মাহের জুয়েলার্স এর মালিক আবু তাহের বলেন, নিচতলায় তার দোকানসহ মোট ৪৩টি গয়নার দোকান আছে। আগুন লাগার পর প্রাণ হাতে নিয়ে বেরিয়ে আসার সময় শাটার নামানো হলেও অনেকে তালা মারতে পারেননি।

তাহেরের ধারণা মার্কেটের দোতলায় মাঝ বরাবর আগুনের সূত্রপাত হয়। সেখানে পোশাক, টেইলার্স, ফোম, কসমেটিকস, খেলনা ও খাবারের দোকান আছে। এসব দোকানের খাবার বাইরে থেকে রান্না করে আনা হয়।

আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার পর নিচতলার গয়নার দোকানের মালিকরা যার যার দোকানের সামনে অবস্থান নেন। তবে কেউ দোকান খোলেননি। সাদা পোশাকের পুলিশ সদস্যরাও সেখানে আছেন বলে ওয়ারী থানার ওসি আজিজুর রহমান জানান।

আগুন লাগার পর পাশের অভিসার সিনেমা হল সংলগ্ন রাস্তা এবং মতিঝিল শাপলা চত্বর, গুলিস্তান, সায়েদাবাদ এবং দয়াগঞ্জমুখী সড়কে যান চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়। পুলিশ সদস্যরা রাস্তায় অবস্থান নিয়ে ভিড় সামলানোর চেষ্টা করেন।

ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক দিলীপ কুমার বলেন, “আমরা হাইরাইজ মেশিন দিয়ে চারপাশ থেকে পানি দিতে পেরেছি। এ কারণে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনা সহজ হয়েছে।”

এ বাহিনীর মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন সর্বশেষ তথ্য দেন , “আগুন নিয়ন্ত্রণে এসেছে। ভেতরের কী অবস্থা আমরা এখন দেখছি।”

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ