ইসলাম ব্রিটিশ জীবন ধারায় হুমকি : টোরি

প্রকাশিত: ৯:২১ অপরাহ্ণ, ডিসেম্বর ৯, ২০১৯

ইসলাম ব্রিটিশ জীবন ধারায় হুমকি : টোরি

হ্যালো বাংলাদেশ নিউজঃযুক্তরাজ্যের কনজারভেটিভ (টোরি) দলের সদস্যরা ব্রিটিশ জীবন ধারার প্রতি ইসলামকে একটি হুমকি বলে মনে করেন। তারা ব্রিটেনে মৃত্যুদন্ড ফিরিয়ে আনতে চান। তারা মনে করেন ট্রাম্প একজন ভালো প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে দেবেন। এক নতুন জরিপে এ কথা জানা গেছে।
ইউগভ জরিপে বলা হয়েছে, ৫৮ শতাংশ টোরি সদস্য মনে করেন যে নির্দিষ্ট কিছু অপরাধের ক্ষেত্রে মৃত্যুদন্ড পুনর্বহাল করা উচিত। তবে ৩৭ শতাংশ মৃত্যুদন্ড পুনর্বহাল চান না।

জরিপে অংশ নেয়া ৫৬ শতাংশ টোরি সদস্য বলেন, ব্রিটিশ জীবন ধারার প্রতি ইসলাম এক সার্বিক হুমকি। তবে ২২ শতাংশ টোরি সদস্য মনে করেন যে এটা মানানসই ধর্ম। কনজারভেটিভ দল যখন ইসলামফোবিয়া বিষয়ে কিছু করতে ব্যর্থ হয়েছে বলে অভিযোগ খন্ডনের চেষ্টা করছে সে সময়েই জরিপে এ মত উঠে এল।

ট্রাম্পের নেতৃত্ব প্রশ্নে ৫৪ শতাংশ বলেছেন যে তাদের বিশ্বাস ট্রাম্প যুক্তরাজ্যের জন্য একজন ভালো প্রধানমন্ত্রী বানিয়ে দেবেন। ৪৩ শতাংশ মনে করেন তিনি ভালো হবেন না। চ্যানেল ৪-এর ‘ডিসপ্যাচ’-এর জন্য পরিচালিত এ জরিপে দেখা যায়, বিভিন্ন জাতি ও সংস্কৃতির পটভ‚মি থেকে আসা লোকজন ব্রিটিশ সমাজকে ক্ষতিগ্রস্ত করেছে।

এ অনুষ্ঠানটি গত সোমবার রাত ৮টায় সম্প্রচারিত হয়। এতে টোরি দলের স্বঘোষিত সদস্যদের ফেসবুকে দেয়া ইসলামফোবিক মন্তব্য তুলে ধরা হয়। বরিস জনসনের সমর্থক গ্রুপের এক সদস্য বলেন, আমি সমগ্র গ্রেট ব্রিটেনে মুসলিমদের প্রবেশ নিষিদ্ধ করব। জ্যাকব রিস মগ অ্যাপ্রিসিয়েশন সোসাইটির এক সদস্য বলেন, মেইডস্টোন ও ওরসেস্টারে দুটি মেগা মসজিদের অনুমতি দেয়া হচ্ছে। এ বিষয়ে আমাদের মত কি? আরেক ব্যক্তি বলেন, ভুল।

ইউগভ জরিপে জলবায়ুর কারণে সৃষ্ট হুমকির ব্যাপারে সন্দেহ প্রকাশ করা হয়েছে। ৪৬ শতাংশ টোরি সদস্য মনে করেন যে জলবায়ু হুমকি অতিরঞ্জিত করে বলা হয়েছে। ৪৫ শতাংশ মনে করেন বিজ্ঞানীরা যে সব বিপদের কথা বলেছেন তার সবই ঠিক।
গত জুনে সাবেক টোরি চেয়ারওম্যান সাইয়েদা ওয়ারসি দলে ইসলামফোবিয়া তদন্তে একটি অভ্যন্তরীণ তদন্ত অনুষ্ঠানে কনজারভেটিভ নেতৃত্ব লাভের প্রতিযোগীদের অঙ্গীকারকে স্বাগত জানিয়েছিলেন। তবে তাদের লাথি মেরে ও চিৎকার করে টেনে আনা লজ্জাজনক।
এদিকে মুসলিম কাউন্সিল অব ব্রিটেন (এমসিবি)- এর মুখপাত্র মিকদাদ ভারসি গত মাসে প্রকাশ করেন যে টোরিদের মধ্যে ইসলামফোবিয়ার শত শত ঘটনা তিনি রেকর্ড করেছেন।

এমসিবি সমতা ও মানবাধিকার কমিশনের কাছে ২০ পৃষ্ঠার সাক্ষ্যপ্রমাণ পেশ করে টোরি দলের মধ্যে ইসলামফোবিয়ার অভিযোগ আনুষ্ঠানিকভাবে তদন্ত শুরুর জন্য নিরপেক্ষ তদন্তকারীদের প্রতি আবেদন জানিয়েছেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ