মাদ্রিদে বিনামূল্যে কোরাআন বিতরণ সম্পন্ন”

প্রকাশিত: ২:৪৯ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১১, ২০১৯

মাদ্রিদে বিনামূল্যে কোরাআন বিতরণ সম্পন্ন”

মুজিব
মাদ্রিদ:”মাদ্রিদে বিনামূল্যে কোরাআন বিতরণ সম্পন্ন”

আল্লাহপাক তাঁর ফেরেশতা জিব্রাঈল(আঃ) এর মাধ্যমে সর্বশেষ নবী ও রাসূল বিশ্বমানবতার মুক্তিদূত হযরত মুহম্মদ (সঃ) এর কাছে মৌখিকভাবে খণ্ডে খণ্ডে দীর্ঘ ২৩ বছরে সম্পূর্ণ কোরআনকে অবতীর্ণ করেন। কোরআনের প্রথম আয়াত নাজিল হয় ৬০৯ খ্রিষ্টাব্দে যখন নবী কারীম (সঃ) এর বয়স ৪০ বছর।

পবিত্র কোরান মাজীদ মূলত আল্লাহর বাণী হিসেবে পাঠানো হয় সমগ্র মানব জাতির মুক্তির জন্য। শুধুমাত্র মুসলমানদের জন্য কোরান নাজিল করা হয়নি। পবিত্র কোরানকে সর্বকালের, সর্বদেশের, সর্বলোকের জীবন বিধান ও মুক্তির সনদ হিসেবে আল্লাহ তাআলা ওহীর মাধ্যমে নাজিল করেছেন

কোরআন কে বুঝে পড়ার তাগিদ দেয়া হয়েছে আল্লাহর পক্ষ থেকে। পবিত্র কোরানে আল্লাহ বলেন_
“এটি একটি বরকতময় কিতাব, যা আমি আপনার প্রতি বরকত হিসেবে অবতীর্ণ করেছি, যাতে মানুষ এর আয়াতসমূহ লক্ষ্য করে এবং বুদ্ধিমানগণ যেন তা অনুধাবন করে”। সুরা ছোয়াদ ৩৮ঃ২৯

কোরানের অন্য এক জায়গায় বলা হয়েছে, ” তারা কি কোরান সম্পর্কে গভীর চিন্তা করে না? নাকি তাদের অন্তর তালাবদ্ধ?”

“আল কোরআন একাডেমি, লন্ডন” বিশ্বের বিভিন্ন দেশের ভিন্ন ভিন্ন ভাষাভাষীদের মাঝে তাদের নিজস্ব ভাষায় কোরানকে পৌঁছে দিতে কাজ করে যাচ্ছে। ইতোমধ্যে তারা বিগত ৮ বছরে ১১ লক্ষ কোরান বিতরণ করেছেন। এরই ধারাবাহিকতায় “ইসলামিক ফোরাম অব মাদ্রিদ, স্পেন” এর আয়োজনে মাদ্রিদে বসবাসরত বাংলা ভাষাভাষীদের মাঝে বিনামূল্যে বাংলায় অনুবাদকৃত কোরান বিতরণ করে “আল কোরান একাডেমি, লন্ডন।”

গত ৭ নভেম্বর বৃঃবার রাত সাড়ে আটটায় স্থানীয় মেহমানখানা রেস্টুরেন্টে অনুষ্ঠিত হয় কোরান বিতরণ অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আল কোরান একাডেমি লন্ডন এর চেয়ারম্যান ডঃ হাফেজ মুনির উদ্দিন আহমেদ। স্থানীয় আল হুদা মসজিদের খতিব জনাব নুরুল আলমের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইসলামিক ফোরাম মাদ্রিদ, স্পেনের সভাপতি জনাব মোরশেদ আলম।

অনুষ্ঠানে অর্থ সহকারে কোরান অধ্যয়নের প্রতি গুরুত্ব আরোপ করা হয়।

উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মসজিদ মাদ্রিদের সভাপতি জনাব খোরশেদ আলম মজুমদার, বাংলাদেশ মসজিদের সম্মানিত খতিব জনাব হাসান বিন আব্দুল্লাহ, বিশিষ্ট কমিউনিটি ব্যক্তিত্ব জনাব মনিরুজ্জামান মনির, জনাব ইসলাম উদ্দিন পংকি, জনাব ফজলে এলাহি, জনাব আল-আমিন সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত সকলকে নিজের কাছের আত্মীয় অনাত্মীয় সহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের ভিন্ন ভিন্ন ভাষাভাষীদের মাঝে তাদের নিজস্ব ভাষায় কোরান পৌঁছে দেয়ার জন্য অনুপ্রাণিত করা হয়। এবং এই কাজকে সাদকায়ে জারিয়া হিসেবে উল্লেখ করা হয়। আর এরজন্য কোরান একাডেমি লন্ডনের সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেওয়া হয়।

প্রতি কপি কোরান অনুবাদসহ ছাপাতে ৩ ইউরো করে হাদিয়ার কথা বলা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত অনেকেই মহান রবের সন্তুষ্টির আশায় স্বেচ্ছায় দশ, বিশ কপি থেকে শুরু করে একহাজার কপি করে কোরান ছাপিয়ে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে বিতরণের ওয়াদা করেন। এবং পরবর্তীতে এমন মহৎ কাজে কেউ শরীক হতে চাইলে ইসলামিক ফোরাম মাদ্রিদের মাধ্যমে যোগাযোগ করতে বলা হয়।

আল কোরান একাডেমি লন্ডনের চেয়ারম্যান দুঃখ করে বলেন, “পৃথিবীতে প্রায় ৬ হাজারেরও বেশি ভাষা আছে, পবিত্র কোরান শরীফ অনুবাদ হয়েছে মাত্র ১১০ টি ভাষায়। অথচ বাইবেল কে খ্রিষ্টানরা ইতোমধ্যে প্রায় সাড়ে তিন হাজার ভাষায় অনুবাদ করে ফেলেছে।”

মাদ্রিদের স্প্যানিশ লোকজনের মাঝে স্প্যানিশ ভাষায় অনুদিত কোরান বিনামূল্যে বিতরনের একটি উদ্যোগও অনুষ্ঠানে নেওয়া হয়। এবং আগামী রমজানে অথবা এরও আগে পাঁচ হাজার কপি কোরান স্প্যানিশ ভাষায় অনুবাদ করে আনার জন্য একটি কমিটিও গঠন করা হয়।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ