যুক্তরাজ্যে মাদক ব্যবসায়ের দায়ে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ২ ব্যক্তির কারাদণ্ড

প্রকাশিত: ১০:৫৭ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১৯, ২০১৯

যুক্তরাজ্যে মাদক ব্যবসায়ের দায়ে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত ২ ব্যক্তির কারাদণ্ড

মাদক ব্যবসায়ে জড়িত থাকার দায়ে দুই ব্রিটিশ বাংলাদেশিকে তিন বছর করে কারাদণ্ড দিয়েছে যুক্তরাজ্যের একটি আদালত। সোমবার (১৮ নভেম্বর) রুকন আহমেদ (২৯) ও দিলরাজ মিয়া (২৯) নামের দুই ব্যক্তিকে এই দণ্ডাদেশ দিয়েছে স্নেয়ার্সব্রুক ক্রাউন কোর্ট। পূর্ব লন্ডনে সমন্বিত এক অভিযানের মাধ্যমে তাদের গ্রেফতার করা হয়। তারা একটি সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ী চক্রের সদস্য বলে জানিয়েছে পুলিশ।

চলতি বছর মাদকবিরোধী প্রচারণায় নামে বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত জনগোষ্ঠী অধ্যুষিত টাওয়ার হ্যামলেট ও হ্যাকনে বারাহ এলাকার বাসিন্দারা। তাদের দাবি মাদকের কারণে ওই এলাকায় অপরাধ বেড়েছে। এরপরই মেট্রোপলিটন পুলিশের অনুসন্ধানে চারটি আলাদা ফোন লাইন ব্যবহার করে মাদক কেনাবেচা হওয়ার তথ্য পাওয়া যায়। এদের মোট আট সদস্যকে চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে গ্রেফতার করা হয়।

রুকন আহমেদ ও দিলরাজ মিয়ার বিরুদ্ধে নিষিদ্ধ ঘোষিত এ শ্রেণীর (এই শ্রেণীর মাদকের মধ্যে হেরোইনও রয়েছে) মাদক সরবরাহের ষড়যন্ত্রের প্রমাণ পেয়েছে আদালত। এছাড়া মাদক গ্রহণেরও দুটি ধারায় তাদের অপরাধের প্রমাণ হয়েছে।

যুক্তরাজ্যের ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিসের কর্মকর্তা জোনাথন শেফার্ড বলেছেন, ‘হেরোইনের মতো মাদক ব্যবহারের কারণে ব্যক্তি ও স্থানীয় সম্প্রদায়ের মারাত্মক পরিণতি ঘটাতে পারে। এই আসামিরা তাদের আশেপাশের লোকদেরকে প্রতি সামান্য বাছবিচার ছাড়াই প্রায়শই শিশুদের সামনে খোলামেলাভাবে মাদক ব্যবসা করেছে। আর দাগী মাদক ব্যবহারকারীদেরকে ওই অঞ্চলে চলাফেরা করতেও উৎসাহিত করেছে।’

জোনাথন শেফার্ড বলেন, এই বিচারের লক্ষ্য হলো সমাজবিরোধী আচরণ কমিয়ে আনতে সংঘবদ্ধ মাদক কারবারি চক্রের কার্যক্রম বন্ধ করা। তিনি বলেন, এই সফল বিচারে প্রমাণ হয়েছে ক্রাউন প্রসিকিউশন সার্ভিস মাদক ব্যবসাকে খুবই গুরুত্ব সহকারে দেখে আর আসামিদের অবশ্যই আদালতের মুখোমুখি হতে হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ