করোনা আবারও ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে স্পেনে

প্রকাশিত: ৯:৪৭ অপরাহ্ণ, জুলাই ২৪, ২০২০

করোনা আবারও ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে স্পেনে

নিউজ ডেস্কঃ

করোনা তাণ্ডবে কাবু গোটা বিশ্ব। তারপরও হাতেগোনা যে কয়েকটি দেশ ভাইরাসটিকে নাগালে আনতে সক্ষম হয়েছে ইউরোপের স্পেন তার অন্যতম। করোনার ধ্বংসলীলা কাটিয়ে অনেকটা স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরেছে দেশটি, নেই কোন জরুরি অবস্থা তথা লকডাউন।

এমন অবস্থায় আবারও করোনা ভয়াবহ রূপে ফুঁসে উঠছে দেশটিতে। লকডাউন উঠিয়ে নেয়ার একমাসের ব্যবধানে গত ২৪ ঘণ্টায় আড়াই হাজারের বেশি মানুষের দেহে শনাক্ত হয়েছে ভাইরাসটি।

বিশ্বখ্যাত জরিপ সংস্থা ওয়ার্ল্ডোমিটার স্পেনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের বরাত দিয়ে জানাচ্ছে, গত একদিনে সেখানে ২ হাজার ৬২১ জনের দেহে করোনার সংক্রমণ পাওয়া গেছে। তবে, প্রাণহানি এখনও অনেকটা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। একই সময়ে দেশটিতে মৃত্যু হয়েছে মাত্র ৩ জনের। আর মোট মৃতের সংখ্যা ২৮ হাজার ৪২৯ জনে থেমেছে।

ইউরোপের যেসকল দেশে এখন প্রকোপ অনেকটা নিয়ন্ত্রণে আসছে কিন্তু সংক্রমণ থেমে নেই, স্পেন তার শীর্ষে। আর এতে করেই দেশটিকে ইউরোপে করোনার নতুন হটস্পট হিসাবে ধরা হচ্ছে। দেশটির স্বাস্থ মন্ত্রণালয় বলছে, গত ১৪ দিনে ১৬ হাজার ৪১০ জন স্পেনীয়র শরীরে করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) দেওয়া তথ্যমতে, একই সময়ে যুক্তরাজ্যে সংক্রমিত হয়েছেন ৯ হাজার ৪৬৮, ফ্রান্সে ৮ হাজার ৫২৮, জার্মানিতে ৫ হাজার ৪৫৮, ইতালিতে ২ হাজার ৭৯৬ বেলজিয়ামে ১ হাজার ৯৮৪ ও পর্তুগালে ৪ হাজার ৪৮২ জন। এ থেকে স্পেনের সংকটাবস্থা স্পষ্ট ফুটে উঠেছে।

যদিও বাধ্যতামূলক মাস্ক পড়া এখন কার্যকর রয়েছে। কিন্তু ক্রমেই ভয়াবহ রূপ নিচ্ছে নাইটক্লাব, পানশালা, ব্যক্তিগত পার্টি ও ঘণবসতিপূর্ণ জায়গাগুলোতে।

এদিকে, বিশ্বজুড়ে এখন পর্যন্ত করোনার শিকার ১ কোটি ৫৬ লাখ ৫৬ হাজার ৭৬৬ জন। এর মধ্যে পৃথিবী ছেড়েছেন ৬ লাখ ৩৬ হাজারের বেশি মানুষ। যার অন্যতম ভুক্তভোগী ইউরোপের দেশ স্পেন।

বিশ্বে এখনও প্রতিদিনই হাজার হাজার মানুষের প্রাণ কাড়ছে করোনা। যা শুরুর দিকে ইউরোপের দেশ স্পেনেও ভয়াবহ রূপ নিয়েছিল। তবে, জনসাধারণের সচেতনতা আর সরকারের কঠোর পদক্ষেপে অনেকটা মৃত্যু শূন্যে নামে দেশটিতে।

গত বছরের শেষের দিকে চীনের উহানে শুরু হওয়া ভাইরাসটি পৃথিবীব্যাপী ছড়িয়ে পড়ে এ বছরের শুরুতে। বেইজিংয়ের পরই ইউরোপে চরম আঘাত হানে ভাইরাসটি। ইতালিতে ধ্বংসজ্ঞ চালানোর পর তা একে একে ব্রিটেন, ফ্রান্স, জার্মানি ও স্পেনে ভয়াবহ আকা ধারণ করে।

গত ৪ মার্চ স্পেনে প্রথম করোনায় মারা যান একজন। এরপর টানা ৯১ দিনে প্রতিদিনই ভাইরাসটিতে আক্রান্ত ও প্রাণহানি ঘটে দেশটিতে। বর্তমানে সেখানে সবকিছু স্বাভাবিক রয়েছে। খোলা হয়েছে অফিস, আদালত, কারখানা এমনকি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানও।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ