শোকার্ত মানুষের স্রোত ঠেলে আল্লামা শফীর কফিন হাটহাজারীতে

প্রকাশিত: ১২:৪৯ অপরাহ্ণ, সেপ্টেম্বর ১৯, ২০২০

শোকার্ত মানুষের স্রোত ঠেলে আল্লামা শফীর কফিন হাটহাজারীতে

নিউজ ডেস্ক: হেফাজতে ইসলামের আমির শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফীর কফিন শনিবার সকালে তার দীর্ঘদিনের কর্মস্থল চট্টগ্রামের হাটহাজারী মাদরাসায় এসে পৌঁছে। রাজধানী ঢাকা থেকে ভোর চারটায় রওনা হয়ে শোকার্ত মানুষের ভিড় ঠেলে দীর্ঘ পথ ফাঁড়ি দিয়ে দেশের সর্বজন শ্রদ্বেয় এ আলেমে দ্বীনের কফিন সকাল ৯টায় হাটহাজারীতে প্রবেশ করতেই সেখানে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারণা হয়। হাজারো মানুষ কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে।

হেফাজতে ইসলামের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে একনজর দেখতে ও জানাজায় শরিক হতে তার ছাত্র ও ভক্তরা হাটহাজারীতে ভোর থেকেই আসতে শুরু করেন। ফলে সেখানে সৃষ্টি হয়েছে জনস্রোত।

শনিবার বেলা ২টায় চট্টগ্রামের হাটহাজারীর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসা মাঠে তার নামাজে জানাজা অনুষ্ঠিত হবে। তিনি দীর্ঘদিন এই মাদ্রাসার মহাপরিচালকের দায়িত্বে ছিলেন।

ইতোমধ্যে জানাজার প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। প্রবীণ এই আলেমকে শেষবারের মতো দেখা এবং শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য তার মরদেহ মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে রাখা হবে। এরপর বেলা ২টায় জানাজা শেষ মাদ্রাসার ভেতর উত্তর মসজিদ সংলগ্ন কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

মাদ্রাসার সহকারী পরিচালক মাওলানা শেখ আহমদ বলেন, মৃত্যুর সংবাদ পাওয়ার পর রাতে মাদ্রাসার জ্যেষ্ঠ শিক্ষকেরা বসে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

শুক্রবার সন্ধ্যা ৬টার পর রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালে আল্লামা শফী ইন্তেকাল করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ১০৩ বছর।

হাটহাজারী মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে বৃহস্পতিবার দুপুরে অসুস্থ হয়ে পড়েন আল্লামা শফী। রাতে অ্যাম্বুলেন্সে করে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সকালে হাসপাতালের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকরা মেডিকেল বোর্ডে বসেন।

শারীরিক অবস্থা সংকটাপন্ন হওয়ায় দুপুরের দিকে চিকিৎসকরা তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ