সিলেট-২আসনের এমপি মুকাব্বির খানের গাড়িতে হামলা

প্রকাশিত: ১১:৫১ অপরাহ্ণ, আগস্ট ১০, ২০২০

সিলেট-২আসনের এমপি মুকাব্বির খানের গাড়িতে হামলা

নিউজ ডেস্কঃ

সিলেটের বিশ্বনাথে প্রথম বারের মতো উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির সভায় যোগদানের পথিমধ্যে স্থানীয় এমপি ও গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোকাব্বির খানকে বহনকারী গাড়িতে হামলা করা হয়েছে। সোমবার সকাল ১১টার দিকে উপজেলা পরিষদের প্রবেশের পথিমধ্যে উপজেলা চেয়ারম্যানের কার্যালয়ের সামনে পুলিশি প্রটোকলে থাকা এমপির গাড়িতে ওই হামলার ঘটনা ঘটে। তবে হামলায় গাড়ির ক্ষতি হলেও এমপি মোকাব্বির খানসহ তাঁর সঙ্গিয় লোকজন অক্ষত রয়েছেন।

সভায় উপস্থিত হয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক শামীম আহমদের নেতৃত্বে ওই হামলা করা হয়েছে জানিয়ে এব্যাপারে দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য থানা পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছেন এমপি মোকাব্বির খান। এসময় সভায় উপস্থিত থাকা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খান ও ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ বলেন বিশ্বনাথের মাটি ও মানুষের উন্নয়নের স্বার্থে আওয়ামী লীগ সকল ধরনের সহযোগীতা করবে। আর এমপির গাড়িতে হামলাকারীদের ২৪ ঘন্টার মধ্যে আইনের আওতায় আনার দাবী জানান পংকি খান।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলা আইন-শৃংখলা কমিটির মাসিক সভায় স্থানীয় এমপি মোকাব্বির খান যোগদান করছেন সংবাদ পেয়ে একই সময়ে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কার্যালয়ের সামনে তার (নুনু মিয়া) অনুসারী শ্রমিক লীগ-যুবলীগ ও স্বেচ্ছাসেবক লীগের ব্যানারে শোক সভার আয়োজন করা হয়। গাড়িতে হামলা হওয়ার পরও এমপি মোকাব্বির খান আইন-শৃংখলা কমিটির সভায় যোগদান করেন। এসময় সভায় পূর্ব থেকেই উপস্থিত ছিলেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব পংকি খান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ফারুক আহমেদ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা হাবিবুর রহমাম, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান জুলিয়া বেগমসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানবৃন্দ ও আইন-শংখলা কমিটির সদস্যবৃন্দ। সভা চলাকালে এমপি মোকাব্বির খানের বক্তব্য প্রদানের পূর্ব মুহুর্তেই উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম নুনু মিয়া সভাস্থল ত্যাগ করে ওই শোকসভায় যোগদান করেন। এসময় এমপির গাড়িতে হামলাকারী ব্যক্তিরা ওই শোক সভায় উপস্থিত ছিলেন বলে অভিযোগ করেছেন এমপির অনুসারীরা।

সিলেট-২ আসনের সংসদ সদস্য মোকাব্বির খান অভিযোগ করে বলেন, আওয়ামী লীগ নেতা সিরাজুল ইসলাম সিরাজ ও শামীম আহমদের নেতৃত্বে আমার গাড়িতে হামলা চালানো হয়েছে। হামলার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেপ্তার করতে আমি থানা পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছি।

তবে এমন অভিযোগ মিথ্যা ও বানোয়াট উল্লেখ করে উপজেলা আওয়ামী লীগের শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম সিরাজ বলেন, এমপি মোকাব্বির খানের গাড়িতে হামলা হয়েছে শুনে আমরা গিয়ে তাকে নিরাপদে নিয়ে আসি।

কথা বলতে অপর অভিযুক্ত উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক শামীম আহমদের মুঠোফোনে কল দিলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।
বিশ্বনাথ থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) শামীম মুসা জানান, এ ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে আইনী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ