fbpx

আজ শিক্ষানুরাগী আলহাজ্ব আব্দুল মতিন চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী

প্রকাশিত: ৮:০২ অপরাহ্ণ, নভেম্বর ১২, ২০২১

আজ শিক্ষানুরাগী আলহাজ্ব আব্দুল মতিন চৌধুরীর মৃত্যুবার্ষিকী

মোঃ মুহিব হাসান:
আজ ১২ নভেম্বর। ওসমানীনগরের বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক মরহুম আল্হাজ্ব আব্দুল মতিন চৌধুরীর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী। ২০২০ইং সালের ১২ নভেম্বর তিনি ইন্তেকাল করেন। ঐদিন উপজেলার গোয়ালাবাজারস্থ নগরীকাপন গ্রামে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।
আল্হাজ্ব মতিন চৌধুরীর পিতার নাম আব্দুল বারী চৌধুরী ও মা জামিলা খাতুন চৌধুরী। তিনি ১৯৪৪ সালের ১১মার্চ তৎক্ষালিন বৃটিশ ভারতের সিলেটের বালাগঞ্জ উপজেলার গোয়ালাবাজারের নগরীকাপন গ্রামে জন্ম গ্রহণ করেন। ৫ ভাই ও ২বোনের মধ্যে তিনি ছিলেন সবার ছোট। মরহুমের ২ছেলে ও ৭মেয়ের সবাই যুক্তরাজ্য প্রবাসী। বড় ছেলে সেলিম চৌধুরী কর্মজীবনের শুরুতে যুক্তরাজ্যের পুলিশ বিভাগে কাজ করেন। যুক্তরাজ্যের মূল ধারার রাজনীতি কনজার্ভেটিব পার্টির সাথে সক্রীয় রয়েছেন। যুক্তরাজ্যে দুইবার সিটি কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। বর্তমানে বৃটিশ বাংলা কারি এসোসিয়েশনের প্রেসিডেন্ট এবং বাংলাদেশে এনআরবি ব্যাংকের পরিচালকসহ দেশে-বিদেশে বিভিন্ন শিল্প প্রতিষ্টানের সাথে জড়িত রয়েছেন। ছোট ছেলে শামীম চৌধুরী যুক্তরাজ্যে চাকুরী করেন।
আল্হাজ্ব আব্দুল মতিন চৌধুরী কর্মজীবনে বিভিন্ন ব্যবসার সাথে জড়িত ছিলেন। মরহুম চৌধুরী সিলেট-শ্রীমঙ্গল-নবীগঞ্জ বাস মিনিবাস মালিক সমিতির সহ-সভাপতি ছিলেন। গোয়ালাবাজার মহিলা সরকারী ডিগ্রী কলেজ, গোয়ালাবাজার আদর্শ উচ্চ বিদ্যালয়, হযরত শাহ্ জালাল (র:) প্রস্থাবিত কামিল মাদরাসা,নিজ করনসী শাহ্ সুলেমান করনী (র:) দাখিল মাদরাসা,পাটলিপাড়া পাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, আব্দুল বারী হাফিজিয়া মদরাসা, জালালিয়া আল কুরআন গবেষণা পরিষদসহ অসংখ্য শিক্ষা প্রতিষ্টান এবং সামাজিক সংগঠনের প্রতিষ্টার সাথে জড়িত ছিলেন। এছাড়া এসব শিক্ষা প্রতিষ্টানের দাতা সদস্য এবং ভিন্ন ভিন্ন সময় প্রতিষ্টানগুলোর পরিচালনা কমিটির সভাপতি,সহ-সভাপতি ও সদস্য ছিলেন। তাঁর সহযোগীতায় এলাকার অনেক মেধাবী শিক্ষার্থীর উন্নত প্রতিষ্টানে পড়ালেখার সুযোগ হয়েছে।
বালাগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাব, গোয়ালাবাজার আদর্শ গণপাঠাগারসহ এলাকার অসংখ্য সামাজিক প্রতিষ্টানের দাতা ও আজীবন সদস্য ছিলেন। তাঁর সমাজসেবামূলক কর্মকান্ডে উদ্বুদ্ধ হয়ে ২০০৫ সালে তাঁর বড় ছেলে সেলিম চৌধুরী ”সেলিম চৌধুরী ফাউন্ডেশন’ নামে একটি দাতব্য সংস্থা গড়ে তুলেন। প্রতিষ্টার পর থেকে এ দাতব্য সংস্থা বছরের বিভিন্ন সময় গোয়ালাবাজার ইউনিয়নের অসহায় দুস্থ পরিবারে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ, বন্যার্তদের মধ্যে ত্রান বিতরণ, বিভিন্ন স্কুল, কলেজ, মাদরাসা ও মসজিদে সহযোগিতা প্রদান সহ এলাকার আর্থ সামাজিক উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে আসছে।
গতকাল ১১ নভেম্বর ১ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে মরহুমের রুহের আত্মার মাগফেরাত কামনায় তাঁর বড় ছেলে সেলিম চৌধুরী এলাকার ৩শতাধিক অসহায় দু:স্থ গরীব মানুষের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন। এছাড়া চলতি মাসের শুরুতে তিনি দেশে এসে তাঁর পিতার পদাংক অনুস্মরণ করে হযরত শাহ্ জালাল (র:) প্রস্থাবিত কামিল মাদরাসায় নগদ ৫০হাজার টাকা এবং স্থানীয় একটি মসজিদে নগদ ১লক্ষ টাকা প্রদান করেছেন। পরিবারের পক্ষ থেকে নিজ বাড়িতে হয়েছে বিশেষ দোয়ার আয়োজন।
আমি যখন বালাগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবের সহ-সাধারণ সম্পাদক ও সহ-সভাপতি ছিলাম তখন মরহুমের কাছ থেকে আমাদের ক্লাব অনেক সহযোগীতা পেয়েছে।বিশিষ্ট শিক্ষানুরাগী ও সমাজসেবক মরহুম আলহাজ্ব আব্দুল মতিন চৌধুরীর ১ম মৃত্যুবার্ষিীতে তাকে শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করছি এবং তাঁর রুহের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

Advertisements
Advertisements

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ