তুরস্কের ‘বিপ’ অ্যাপে ঝুঁকছে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্ব

প্রকাশিত: ৯:৫৬ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ১৬, ২০২১

তুরস্কের ‘বিপ’ অ্যাপে ঝুঁকছে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্ব

নিউজ ডেস্কঃসম্প্রতি ম্যাসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ তাদের প্রাইভেসি-পলিসি পরিবর্তনের জন্য ঘোষণা দেয়। তাদের পরিবর্তন করা নতুন নিয়ম-নীতির বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর থেকে ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তা ও তথ্য সুরক্ষার বিষয়ে প্রশ্ন উঠতে থাকে ব্যবহারকারী মহলে। শুরু হয় হোয়াটসঅ্যাপ নিয়ে নানা আলোচনা-সমালোচনা। এরমধ্যেই তুরস্কের তৈরি ‘বিপ’ আলোচনায় উঠে আসে। ফলে দেখা যায় ব্যবহারকারীরা ‘বিপ’ অ্যাপের দিকে ঝুঁকছে এবং বিপরীতে অনেকে হোয়াটসঅ্যাপ থেকে বের হয়ে আসছে।

প্রথমে জানানো হয়েছিল, আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে নতুন নিয়ম-নীতি কার্যকর করা হবে। কিন্তু বিভিন্ন মহলে আলোচনা-সমালোচনা শুরু হওয়ার পর সিদ্ধান্ত পরিবর্তন করেন তারা। পরে জানানো হয়, এখনই নতুন নিয়ম-নীতি চালু করছেন না তারা। তিন মাস পর নতুন নিয়ম-নীতি কার্যকর করা হবে।
হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ ব্যবহারকারীদের তথ্য সুরক্ষার বিষয়ে জানায়, হোয়াটসঅ্যাপের আপডেট নিয়ে বিভিন্ন ভ্রান্ত ধারণা তৈরি হয়েছে ব্যবহারকারীদের মধ্যে। অনেক ভুয়া তথ্যও ছড়িয়েছে যা কিনা চিন্তার বিষয়। খুব সাধারণ ধারণা থেকেই অ্যাপটি তৈরি করা হয়েছে বলে জানান তারা।

আরও বলা হয়, বন্ধু ও পরিবারের মধ্যে কনভারসেশন একদমই গোপন থাকে। সবসময় আমরা এই নীতি মেনে চলব। অ্যাপে লোকেশন শেয়ার করলেও হোয়াটসঅ্যাপ তা কখনও জানতে পারে না। এর কন্টাক্টও ফেসবুকের সঙ্গে শেয়ার করা হয় না। তবে বর্তমান পরিস্থিতি বিবেচনা করে নতুন প্রাইভেসি-পলিসি এখনই কার্যকর করা হচ্ছে না। 

হোয়াটসঅ্যাপ নিয়ে তুরস্কের বক্তব্য : হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষের নতুন প্রাইভেসি-পলিসির ঘোষণা সামনে আসার পরই তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রেচেপ তায়েপ এরদোয়ানের মিডিয়া অফিস জানায়, হোয়াটসঅ্যাপ আর ব্যবহার করবেন না তারা। রোববার এক বিবৃতিতে তারা জানায়, মিডিয়া অফিস তুরস্কে যোগাযোগ কোম্পানি তুর্কসেলের বিআইপি (বিপ) অ্যাপ দিয়ে সোমবার থেকে সাংবাদিকদের তথ্য পাঠাবে। এরপরই টুইটারে ‘ডিলিটিং হোয়াটসঅ্যাপ’ হ্যাশট্যাগ তৈরি করে তুর্কিরা।
তুর্কসেলের বরাত দিয়ে তুরস্কের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় তাদের বিপ ১১ লাখ ২০ হাজারের বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে। এর ফলে বিশ্বজুড়ে তাদের গ্রাহকের সংখ্যা ৫ কোটি ৩০ লাখ ছাড়িয়েছে। সম্প্রতি হোয়াটসঅ্যাপ তাদের শর্ত ও সেবায় যে পরিবর্তন এনেছে, তাতে এটির প্যারেন্ট কোম্পানি ফেসবুক ও অন্যান্য সাবসিডিয়ারির সঙ্গে গ্রাহকের তথ্য শেয়ার করা হবে। হোয়াটসঅ্যাপের নতুন এই পলিসি আগামী ৪ ফেব্রুয়ারি থেকে কার্যকর হবে।

তবে হোয়াটসঅ্যাপের নতুন এই পলিসি যুক্তরাজ্য ও ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর ক্ষেত্রে কার্যকর হবে না বলে জানায় সংস্থাটি। তুরস্কের কর্মকর্তারা হোয়াটসঅ্যাপের এমন সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করেছে। তবে তুরস্কে এমন সিদ্ধান্ত আসার পরই হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ তাদের নতুন প্রাইভেসি-পলিসি এখনই কার্যকর করা হবে না জানান। কিন্তু এর মধ্যেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ‘বিপ’ অ্যাপ ডাউনলোডের হিরিক পড়তে থাকে।

বিপ অ্যাপ সম্পর্কে : অ্যাপটির পক্ষ থেকে বিজ্ঞাপন প্রচার করা হচ্ছে। সেখানে ব্যবহারকারীদের গোপনীয়তার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হচ্ছে। বলা হচ্ছে, অ্যাপটি অ্যান্ড-টু-অ্যান্ড এনক্রিপটেড অর্থাৎ ভয়েস কল বা মেসেজ আদান-প্রদানে গোপনীয়তা থাকবে এবং অন্য কেউ হ্যাক করতে পারবে না। এটি অন্যান্য অ্যাপের মতো ভিডিও কলিং ও ম্যাসেজিংয়ের মতোই কাজ করে।

আইওএস চালিত আইফোন ও অ্যান্ড্রয়েড চালিত মোবাইল ফোনে ডাউনলোড করা যায় অ্যাপটি। সেই সঙ্গে যারা ডেস্কটপে ব্যবহার করতে চান তারাও ব্যবহার করতে পারবেন অ্যাপটি।

তুরস্কের গণমাধ্যমে বলা হচ্ছে, ২০১৩ সালে মোবাইল ফোন কোম্পানি টার্কসেল উদ্ভাবন করে ‘বিপ’ অ্যাপটি। বিশ্বের ১৯২টি দেশ ব্যবহার করছে অ্যাপটি এবং তাদের বেশিরভাগ ব্যবহারকারীই ইউরোপের বিভিন্ন দেশের। সাম্প্রতিক সময়ের আগ পর্যন্ত অ্যাপটি বেশি ডাউনলোড হয়েছে জার্মানিতে এবং সেখানেই এর ব্যবহার বেশি। এছাড়াও রয়েছে ফ্রান্স এবং ইউক্রেন। তবে বর্তমানে ইউরোপ ও মধ্যপ্রাচ্যে ব্যাপক চাহিদা তৈরি হয়েছে অ্যাপটির।

গোপনীয়তা : অ্যাপটির মাধ্যমে অডিও-ভিডিও কল, মেসেজ, ছবি-ভিডিও আদান-প্রদান করা যায়। কর্তৃপক্ষ জানাচ্ছে, এখানে সিক্রেট চ্যাটের সুবিধা রয়েছে। কোনো ব্যবহারকারী চাইলে নির্দিষ্ট সময় পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেসেজটি মুছে দিতে চাইলে সময় সেট করা যাবে। তুরস্কের ডেইলি সাবাহ এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, সম্প্রতি একটি মেসেজিং অ্যাপ কর্তৃপক্ষ তাদের গোপনীয়তা-নীতি পরিবর্তন করার ঘোষণা দেওয়ার পর থেকে প্রতিদিন ২০ লাখ বার ডাউনলোড হচ্ছে ‘বিপ’ অ্যাপটি।

এ পর্যন্ত বিশ্বে ৬ কোটি বার ডাউনলোড হয়েছে অ্যাপটি। শিগগিরই অ্যাপটি ১০ কোটি বার ডাউনলোড ছাড়াবে বলে আশা প্রকাশ করছেন টার্কসেল’র কর্মকর্তারা। সূত্র : বিবিসি বাংলা, থ্রেটপোস্ট ও রয়টার্স

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

faster