তুষারপাতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ইউরোপের জনজীবন

প্রকাশিত: ১০:৩৪ অপরাহ্ণ, জানুয়ারি ৯, ২০২১

তুষারপাতে বিপর্যস্ত হয়ে পড়েছে ইউরোপের জনজীবন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক: তীব্র তুষারের কবলে পড়েছে পশ্চিম ইউরোপবাসী৷ গত সোমবার প্রবল তুষারপাতের কারণে পশ্চিম ইউরোপে ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ ব্যাহত হয়েছে যুক্তরাজ্য, ফ্রান্স এবং স্পেনের বিমান ও ট্রেন যোগাযোগ৷

স্নোডন পাহাড়ে তুষার ঝড়ে মৃত্যু হয়েছে দুই পর্বত আরোহীর৷ ইতালিতে সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছে আরও তিনজন এবং ভারী তুষার বর্ষণের কারণে বন্ধ হয়ে গিয়েছিল পশ্চিম ইউরোপের গুরুত্বপূর্ণ শহরের রাস্তাঘাট৷

হিথ্রো বিমানবন্দরে অসংখ্য বিমান যাত্রা বন্ধ করা হয়েছে৷

এদিকে ১৮ বছর পর লন্ডন তীব্র তুষারপাতের সম্মুখীন হয়েছে৷ হিথ্রো বিমানবন্দরে অসংখ্য বিমান যাত্রা বন্ধ করা হয়েছে৷ রাস্তায় বাস চলাচল বন্ধ ছিল৷ বিলম্বিত ছিল ট্রাম সার্ভিস আর বন্ধ ছিল সব স্কুল৷

দক্ষিণ পূর্ব ইংল্যান্ডে পুরো অঞ্চল এখন বরফে ঢাকা৷ বিভিন্ন জায়গায় জমেছে ৮ থেকে ১২ ইঞ্চি পুরু বরফ৷ ৬০ লাখ মানুষ কর্মস্থলে পৌঁছাতে পারেনি৷ ফলে যুক্তরাজ্যকে অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হয়েছে৷ যার পরিমাণ ৩ বিলিয়ন পাউন্ড ৷ বিমান বন্দরের অনেক ফ্লাইট বন্ধ হয়ে যাওয়ায় আটকা পড়েছে শত শত মানুষ৷

ইতালিতে প্রবল তুষার ঝড়ের কবলে পড়ে ৩ জন ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে৷ বন্ধ হয়েছে রোম ও মিলানের ২০টি ফ্লাইট৷ এছাড়াও ঝড়ের সম্মুখীন হয়েছে ফ্রান্স এবং স্পেন৷ ভারী তুষারপাত আর তুষারঝড়ে কাবু স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদসহ পুরো স্পেন। বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকে শুরু হওয়া অঝোরধারার তুষারপাতে ঢাকা পড়েছে বিস্তীর্ণ এলাকা। দেশটির রাজধানী মাদ্রিদসহ কয়েকটি রাজ্যে জারি করা হয় জরুরি অবস্থা।

নাগরিকদের নিরাপত্তার জন্য বিশেষ প্রয়োজন ছাড়া ঘরে থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। স্থানীয় সময় রবিবার মধ্যরাতের পর তুষারপাতের পরিমাণ আরও বাড়ার কথা। আবহাওয়ার পূর্বাভাস অনুযায়ী, এবারের তুষারপাত নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করবে। কোনো কোনো জায়গায় তিন ফুটের বেশি বরফের স্তূপ জমবে বলে সতর্ক করে দেওয়া হচ্ছে।

বন্ধ হয়েছে সমস্ত রাস্তা ও ট্রেন চলাচলের রাস্তা৷

বেলজিয়াম ও আয়ারল্যান্ডে খারাপ আবহাওয়ার কারণে ব্যাহত হয়েছে স্বাভাবিক জীবন যাত্রা৷

এ সংক্রান্ত আরও সংবাদ

faster