হাস‍্যরসিকতায় বঙ্গবন্ধু


মুহাম্মদ শামসুল ইসলাম:
বঙ্গবন্ধুর কৈশোর কেটেছে আন্দোলনের মধ‍্যেই। কিন্তু শত রাজনৈতিক কূটচাল, ষড়যন্ত্র, জেল- জুলুমের কঠিন দিনগুলোতেও রঙ্গরসপ্রিয় মন হারিয়ে ফেলেননি বঙ্গবন্ধু। যখনই সুযোগ পেয়েছেন স্বভাবসুলভ রসিকতায় মাতিয়ে রেখেছেন সঙ্গীদের। তেমনি হাস‍্যরসের কয়েকটি ঘটনা নিচে দেওয়া হলো।
শাড়ি ছিনতাই
ইন্দিরা গান্ধী বাংলাদেশ সফরে আসার সময় শেখ মুজিব মন্ত্রীসভার প্রত‍্যেক সদস‍্যের স্ত্রীর জন‍্য একটি করে শাড়ি নিয়ে আসেন। চলে যাওয়ার আগের দিন ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী এই মর্মে অভিপ্রায় ব‍্যক্ত করলেন যে, স্বহস্তে এসব শাড়ি মন্ত্রীদের হাতে তুলে দিতে চান তিনি।বঙ্গভবনে ছোটখাটো একটা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হলো। মাঝে একটা টেবিল দিয়ে গোল করে প্রত‍্যেক মন্ত্রীর জন‍্য চেয়ার পাতা হলো। পাশাপাশি বসলেন বঙ্গবন্ধু ও ইন্দিরা গান্ধী। এক সময় ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী স্বয়ং উঠে প্রত‍্যেক মন্ত্রীর হাতে শাড়ির প‍্যাকেট উপহার দিলেন।
ইন্দিরা গান্ধী ফের আসন গ্রহণের সঙ্গে সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ মুজিব জলদগম্ভীর কন্ঠে বলে উঠলেন, ‘জেনারেল ওসমানী,ফনিদা আর ড.মফিজ চৌধুরী, আপনারা তিনজন শাড়ির প‍্যাকেটগুলো আমার টেবিলে রেখে আসুন’। তিনজনই নেতার হুকুম পালন করলেন। বঙ্গবন্ধু এভার গম্ভীর স্বরে বললেন, ‘জহুরভাই (চট্রগ্রামের জহুর আহমদ চৌধুরী ), আপনি ওই শাড়ি তিনটি নিয়ে নেন’। একথা শুনার পর একমাত্র মিসেস গান্ধী ছাড়া সবাই অট্টহাসিতে ফেটে পড়লেন। ইন্দিরা গান্ধী একযোগে সবার হাসির কারণ জিঞ্জেস করলে বঙ্গবন্ধু জানালেন, জেনারেল ওসমানী ও ড.ফনিদা চিরকুমার এবং মফিজ বিপত্মীক আর জহুর আহমদ চৌধুরীর একাধিক বেগম বর্তমান। এবার ভারতীয় প্রধানমন্ত্রীসহ সবাই হাসলেন আরেক দফা।

জন্মনিয়ন্ত্রণের দ্বায়িত্ব
১৯৭২ সালের কথা,সবে সংসদীয় পদ্ধতির সরকার ব‍্যবস্থা চালু হয়েছে,মন্ত্রীদের দপ্তর এখনো বন্টন হয়নি। এ নিয়ে এ বি এম মুসা একটু কৌতূহল প্রকাশ করায় বঙ্গবন্ধু গাম্ভীর্যের সঙ্গে বললেন, “সব এখন বলবো না, একটো পরে জানতে পারবা। উপযুক্ত ব‍্যক্তিকে যথাযথ দ্বায়িত্ব দিয়েছি। স্বাস্থ্য ও জননিয়ন্ত্রণ দপ্তরটি অনেক ভেবে চিন্তে সেটা জহুর আহমদ চৌধুরীর কাধে চাপালাম। ভেবে দেখলাম, আমার মতো সারা জীবন জেল খাইটা তার শরীর খ‍্যাংরা কাঠির মতো সয়ে গেছে। সব ডাক্তারকে সে মানুষের স্বাস্থ‍্য ভালো করার তাগিদ দিতে পারবে। আবার তার দুই বউয়ের ১৪টি বাচ্চা নিয়ে হিমশিম খাইতেছে। বেশি বাচ্চা হওয়ার জ্বালাটা সে ভালো বোঝে। তাই তারে জন্মনিয়ন্ত্রণের দ্বায়িত্ব দিয়ছি।“
তেল পাওয়ার পূর্বশর্ত
বাংলাদেশে গ‍্যাস অনুসন্ধান করতে চায় কিছু বিদেশি কোম্পানি। মন্ত্রীদেরসহ তাদের সঙ্গে আলোচনায় বসলেন বঙ্গবন্ধু। বৈঠকের পর গণভবনে যথারীতি বসেছে আড্ডা। সেখানে গ‍্যাস অনুসন্ধান বিষয়ে আলাপ উঠলে বঙ্গবন্ধু বললেন, ‘ওদের বলছি শুধু গ‍্যাস নয় তেলও আছে। অতীতে এ নিয়ে কোন অনুসন্ধান হয়েছে কিনা জানতে চাইলে আমি বলছি, তা হয়নি। তবে আমি নিশ্চিত আমাদের তেলও আছে। কারণ আরব দেশগুলোর তেল পাওয়ার যে দুটা ক্রাইটেরিয়া রয়েছে, তা আমাদেরও আছে। কী সেই বৈশিষ্ট্য? এক. মুসলিম দেশ হতে হবে। দুই.It’s must be headed by sheikh. রাষ্ট্র বা সরকার প্রধান শেখ হতে হবে। দুটোই আমাদের আছে, কথাগুলো বলে নিজেই হেসে উঠলেন বঙ্গবন্ধু, সবাইকে হাঁসালেন। খিচুড়ি সংগ্রাম পরিষদ

সময়টা ১৯৬৭ বঙ্গবন্ধু তখন কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি। পুরনো ২০ সেলের কয়েকজন বন্দি কিছুদিন ধরে বলছে খিচুড়ি খাবে। বেশ কয়েক দিন ধরে আবদার করছে তারা, কিন্তু জেলখানাতে কোথায় চাল- ডাল পাবেন? তাই তেমন গুরুত্ব দেননি বঙ্গবন্ধু। নজরুল ইসলাম, নুরে আলম সিদ্দিকীরা নাছোড়, খিচুড়ি আদায় করতে হবে। কয়েকজন মিলে রীতিমতো “খিচুড়ি র্সগ্রাম পরিষদ” গঠন করে তারাঁ।
জেলখানায় বঙ্গবন্ধুর পাকঘরের কাছে একটি কাঠাঁল গাছ আছে। একদিন হঠাৎ সেখানে একটা পোস্টার ঝুলতে দেখা গল। খবরের কাগজে কালি দিয়ে তাতে লেখা “ আমাদের দাবি মানতে হবে, খিচুড়ি দিতে হবে”। নিচে লেখা” খিচুড়ি সংগ্রাম পরিষদ”। হাতের লেখা দেখেই চিনে ফেলেন বঙ্গবন্ধু। নজরুল ইসলামের লেখে কোনো কয়েদিকে দিয়ে কাঠাঁল গাছে ঝুলিয়েছে। বঙ্গবন্ধু তাদের ডেকে কৃত্রিম তিরস্কার করলেন, ‘এসব দাবি -টাবি চলবে না’।
হঠাৎ একদিন দাবি পূরণের সুযোগ এসে গেল। ডিআইজি প্রিজনের অনুমতি নিয়ে কয়েক সের চাল, ডাল,ঘি,ডিম,তরকারি,চা,চিনি,লবণ,পেয়াজ প্রভৃতি পাঠিয়ে দিলেন রেনু। ওই দিন বিকালে বঙ্গবন্ধু খিচুড়ি আন্দোলনকরীদের ডেকে বলে দিলেন, ’যাহা হউক তোমাদের ভাবির বদৌলতে খিচুড়ি মঞ্জুর করা গেল। আগামীকাল খিচুড়ি হবে’।
লুঙ্গিকান্ড
আলজেরিয়া যাওয়ার সময় বঙ্গবন্ধুর সফরসঙ্গীদের কাছে ফরেন অফিস থেকে চিটি এলো, আপনারা লুঙ্গি ও মেসওয়াক নিতে পারবেন না। মেসওয়াক আব্দুল গাফফার চৌধুরী ব‍্যবহার করেন না। কিন্তু লুঙ্গি ছাড়া ঘুমাতে পারেন না।তাহলে উপায়? বঙ্গবন্ধুর কাছে ছুটলেন নানা আলাপের ফাকেঁ সুযোগ মতো বললেন ‘বঙ্গবন্ধু, ‘আমার যাওয়ার একটা অসুবিধা আছে।‘
কী অসুবিধা?
আপনার ফরেন অফিসার নির্দেশ দিয়েছে লুঙ্গি নেয়া যাবে না। কিন্তু লুঙ্গি ছাড়া আমি ঘুমাতে পারিনা। কি করি?
তিনি বললেন আরে নিবি নিবি! আমি লুঙ্গি ছাড়া ঘুমাতে পারি!
আমিও তো লুঙ্গি নিব।
গফফার চৌধুরী আলজেরিয়ায় গিয়ে দেখলেন, সত‍্যি সত‍্যি হোটেলে লুঙ্গি পড়ছেন বঙ্গবন্ধু।

সুত্র: ১। জানা-অজানায় জাতির পিতা -আ.ফ.ম.সাঈদ।
*কারাগারের রোজনামচা- শেখ মুজিবুর রহমান

  • মহাপুরুষ-এম আক্তার মুকুল
    *জীবনের বালুকাবেলায়-ফারুক চৌধুরী
  • মুজিব ভাই-এ বি এম মূসা।
    লেখক, সাংগঠনিক সম্পাদক,বঙ্গবন্ধু গবেষণা সংসদ, সিলেট জেলা শাখা।

Recent Posts

  • প্রবাসের খবর

সুপারমার্কেট এসোসিয়েশন ইন কাতালুনিয়ার অভিষেক অনুষ্টান সম্পন্ন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ স্পেনের বার্সেলোনার সুপারমার্কেট ব্যবসায়ীদের সংগঠন সুপারমার্কেট এসোসিয়েশন ইন কাতালুনিয়ার কার্যনির্বাহী কমিটির অভিষেক সম্পন্ন…

11 hours ago
  • জাতীয়

সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচন ৫ আগস্ট পর্যন্ত স্থগিতের আদেশ দিয়েছে হাইকোর্ট

স্টাফ রিপোর্টারঃ করোনা প্রতিরোধে চলমান বিধিনিষেধের মধ্যে আগামী ২৮ জুলাই সিলেট-৩ আসনের উপনির্বাচনের যে তারিখ…

2 days ago
  • জাতীয়
  • রাজনীতি

কঠোর লকডাউনে ও থেমে নেই সিলেট-৩ আসনের নির্বাচনী সভা- সমাবেশ

স্টাফ রিপোর্টার: সারা দেশে চলছে করোনা মহামারির তান্ডব।রবিবার (২৫জুলাই) ২২৮জনের মৃত্যু এটা দেশে সর্বোচ্চ মৃত্যুর রেকর্ড।এ…

3 days ago
  • আইন-অপরাধ

ফেসবুকে আগুনের গুজব : সিলেটে গ্রেফতার ৭

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ: সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে গুজব ছড়ানোর অভিযোগে সিলেটে ভুয়া সাংবাদিকসহ ৭ জনকে গ্রেফতার করেছে…

3 days ago
  • গ্রাম -বাংলা

ওসমানীনগরে দু’পক্ষের সংঘর্ষে মজলিসের সভাপতি ও যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতিসহ ১৪ জন আহত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃওসমানীনগরে মসজিদের কাঁঠালের নিলাম ডাকাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষে উপজেলা যুবলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতিসহ ১৪…

5 days ago
  • আর্ন্তজাতিক

অবৈধ অভিবাসী ঠেকাতে ফ্রান্সের সাথে ব্রিটেনের ৫৪ মিলিয়ন পাউন্ডের চুক্তি

স্টাফ রিপোর্টার:ইংলিশ চ্যানেল পাড়ি দিয়ে অবৈধভাবে প্রতিদিন ব্রিটেনে প্রবেশের চেষ্টা করে শত শত অভিবাসন প্রত্যাশি।…

5 days ago

This website uses cookies.